সোমবার, মে ২০, ২০২৪
Led01বিশেষ প্রতিবেদন

কাঁচপুরে হবে আন্তজেলা বাস টার্মিনাল, আগামীকাল উদ্বোধন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কাঁচপুরে নির্মাণ হচ্ছে আন্তজেলা বাস টার্মিনাল। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে এই প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাই সমীক্ষা ও জমি অধিগ্রহণের কাজ।

আগামীকাল বুধবার কাঁচপুর টার্মিনালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হবে বলে জানা গেছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এই প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করবেন।

প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে পরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আসার পাশাপাশি যানজট কমবে ঢাকা শহরে। পাশাপাশি সায়েদাবাদের বিদ্যমান বাস টার্মিনাল সিটি টার্মিনাল হিসেবে ব্যবহৃত হবে।

জানা গেছে, কাঁচপুর দক্ষিণে ২৬ দশমিক ৭ একর ও কাঁচপুর উত্তরে ১৫ দশমিক ৫ একর জমির উপর টার্মিনালটি নির্মাণ করা পরিকল্পনা করা হয়েছে।

সম্ভাব্যতা সমীক্ষায় টার্মিনালটিতে মাল্টিমডাল-পরিবহন সুবিধা রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। যেখানে সিটি-বাস, ট্যাক্সি, অটোরিকশা এবং প্রাইভেট কার পার্কিংয়ের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা থাকবে। এতে সহজেই যাত্রী নিয়ে টার্মিনালগুলোতে ঢুকতে ও বের হতে পারবে বিভিন্ন যানবাহন। রাতের বেলা আন্তজেলা-বাসগুলো যেন নিরাপদে পার্ক করা যায়, তার জন্য যথেষ্ট জায়গা এবং বাসকর্মীদের জন্য বিশ্রাম ও রাতে থাকার জন্য ডরমেটরি সুবিধাও থাকবে। নতুন টার্মিনালে বাস ধোয়া এবং ছোটখাটো মেরামতের জন্য ওয়ার্কশপ থাকবে। উপরন্তু, ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে, অত্যাধুনিক টার্মিনালে বৈদ্যুতিক গাড়ি চার্জিংয়ের ব্যবস্থা রাখারও প্রস্তাব করা হয়েছে। মূল টার্মিনাল ভবনগুলো হবে বহুতল; নিচতলায় থাকবে বাস পার্কিংয়ের সুবিধা এবং প্রাইভেট কার ও অন্যান্য যানবাহন পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে বেসমেন্টে।

এ ছাড়া যাত্রী ও দর্শনার্থীদের জন্য থাকবে বড়সড় ওয়েটিং-লাউঞ্জ, মায়েদের জন্য বুকের দুধ খাওয়ানোর আলাদা কর্নার, পর্যাপ্ত সংখ্যক টয়লেট, বসার ব্যবস্থা এবং পুরুষ ও নারীদের জন্য নামাজের আলাদা ঘর। এর পাশাপাশি প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ সুবিধা রাখারও প্রস্তাব করা হয়েছে। স্থানীয় ও জাতীয় ঐতিহ্যের কথা মাথায় রেখে টার্মিনালগুলোতে নির্মিত হবে ভাস্কর্য, পেইন্টিং এবং অন্যান্য অবকাঠামো। যাত্রীদের প্রবেশ এবং প্রস্থানের জন্য থাকবে আলাদা লাউঞ্জ এবং বাসে ওঠানামার জন্য থাকবে আলাদা প্রবেশ ও প্রস্থান পয়েন্ট।

টার্মিনালে পর্যাপ্ত অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা, প্রাথমিক চিকিৎসা ও জরুরি পরিষেবা, অন্তত একটি অ্যাম্বুলেন্স এবং একটি অগ্নিনির্বাপক গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য জায়গা রাখা হবে।

এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক কাজী মো. বোরহান উদ্দিন বলেন, বাস টার্মিনাল স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আগামী বুধবার কাঁচপুর টার্মিনালের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করবেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। এই টার্মিনালগুলোতে মাল্টিমডাল-পরিবহন সুবিধা থাকবে। তিনি আরও বলেন, আর চলতি মাসের মধ্যে সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালের সংস্কার কাজ শেষ হবে। কাঁচপুর আন্তজেলা টার্মিনালের নির্মাণকাজ শেষ হলে সায়েদাবাদ টার্মিনালটি সিটি টার্মিনাল হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email