শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪
Led04রাজনীতি

গোগনগরে জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ মানুষের সাথে সেলিম ওসমানের মতবিনিময়

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত পরিষদ ও বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে। রবিবার (১২ নভেম্বর) সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান।

সভার শুরুতে বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে মেম্মারগণ তাদের নিজ নিজ ওয়ার্ড থেকে মিছিল নিয়ে যোগদান করেন। এ সময় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানকে স্কুলের শিক্ষার্থীরা ফুল দিয়ে স্বাগত জানায়। পরে পবিত্র কোরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়।

গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজর আলীর সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সানাউল্লাহ সানু, মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোদাচ্ছেরুল হক দুলাল, বদর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যার দেলোয়ার হোসেন, মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী সালাম, আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান বলেন, করোনায় ৩টা বছর আমরা পিছিয়ে গিয়েছি, যদি এই সময়টা পাওয়া যেতো তাহলে আমরা আরও উন্নয়ন করতে পারতাম। উন্নয়ন হলে অনেকের অনেক কিছুর চাহিদা আজ থাকতো না। প্রতিটা ইউনিয়ন থেকে বলেছে আমাকে আবার নির্বাচন করার জন্য, এটা কেবল মানুষের ভালোবাসা। আমি যখন কাজ করেছি, আমি বলেছি যে, জণগণের গোলাম হয়ে কাজ করবো। আমার কাজে আমার চেয়ারম্যান, মেম্বার ও কাউন্সিলরা আমাকে সহযোগীতা করেছিলো বলেই আমি নিজেকে সুখি মানুষ বলতে পারি। যদি আমার কোন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান-জনপ্রতিনিধি দোষ করে থাকে তাহলে আপনারা সরাসরি আমার কাছে বলবেন। আমি শাসন করে দিবো।

তিনি আরও বলেন, আসেন আমরা সবাই ভালো থাকার চেষ্টা করি। আর ভালো থাকার একটাই উপায়, সেটা হলো শেখ হাসিনা সরকার। শেখ হাসিনা যদি আরও ৫বছর ক্ষমতায় থাকতে পারে তাহলে দেখবেন ৩বছরের গ্যাপ আর ১৫ বছরের উন্নয়ন সমন্বয়ে আমরা কোথায় গিয়ে পৌঁছাই। আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ হয়ে গেছে, এখন আমরা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে যাচ্ছি। এখন প্রতিটা মানুষের কাছে মোবাইল ফোন আছে, মুহুর্তে সব খবর পেয়ে যাবেন। কিন্তু তাই বলে এগুলা দেখা যাবে না,রাস্তায় আগুন দাও, বাস পোড়ায় দেও, মানুষের ক্ষতি করবে, সন্ত্রসী করবে। এটা তো হতে পারে না, তাই সবাইকে একত্রিত হতে হবে। পাড়া-মহল্লায় যাতে কোন বাচ্চা ক্ষতিগ্রস্থ না হয় পড়াশোনায় এটা আপনারা খেয়াল রাখবেন। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ যদি আমার কপালে রাখে, আমার নেত্রী যদি আদেশ করেন, তাহলে অবশ্যই আমি নির্বাচন করবো।

সেলিম ওসমান বলেন, আমার কাছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি কোন কিছু ছিলো না। আমি সবাইকে নিয়ে কাজ করেছি। আপনাদের ভালোবাসা পেয়েছি। আমি যদি আবার দায়িত্ব পাই তাহলে আমি প্রতিটা স্কুল মনিটরিং করার ব্যবস্থা করবো। আগামী নির্বাচনের আপনার ভোট আপনি দিবেন, যাকে খুশি তাকে দিবেন। অবশ্যই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে আপনার ভোটের অধিকার আপনি নিবেন। যাকেই ভোট দিবেন, আপনার বিবেচনার উপরেই সে সংসদ সদস্য হবে।

গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজর আলী বলেন, আমরা চাই আগামী নির্বাচনে আমাদের বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসুক। সেলিম ওসমান সাহেব যতদিন ছিলেন ততদিন কোন সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদকে সুযোগ পায়নি। আমরা ইউনিয়ন বাসি চাই নিজের জন্য না হলেও অন্তত আমাদের জন্য আবার সেলিম ওসমানকে প্রয়োজন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাজির উদ্দিন আহম্মদ, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল্লাহ আল মামুন, সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. কামরুল হাসান মুন্না, শিল্পপতি ও সমাজ সেবক আলমাস আলী বেপারীসহ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email