শনিবার, মে ২৫, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েবন্দররাজনীতি

জেলা পরিষদের মেম্বার মাসুমের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বহির্ভূত সম্পদ, বিলাশ বহুল বাড়ী, দুটি ইট ভাটার মালিকানা অর্জন ও গভীর নলকূপ দেয়ার নামে মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ দুর্নীতি দমন কমিশন তলব করে, বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান জেলা পরিষদের মেম্বার মো. মাসুম আহম্মেদকে। গত বছর ৩১ আগস্ট তাকে দুদক কার্যলয় থেকে নোটিশ জারী করে পাঠানো হয়। কিন্তু তাতে কোন বক্তব্য না দেয়ায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি মো. মাসুমের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক। এরপর রবিবার (৮ অক্টোবর) অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হয়। তথ্যটি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ডেপুটি কমিশনার মইনুল হাসান রওশীন।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়,বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদের মেম্বার মো. মাসুম আহম্মেদ অভিযোগের অনুসন্ধান কার্যক্রম বিষয়ে কমিশনে উপস্থিত হয়ে বরুনা প্রদানসহ রেকর্ডপত্র সরবরাহ না করে দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনকে অবজ্ঞা এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনি কার্যক্রমে বাধা তথা সরকারী কাজে বাধা দেওয়ার অপরাধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ১৯(৩) ধারা মোতাবেক যা অপরাধ করেছেন।

দুর্নীতি দমন কমিশন প্রধান কার্যালয়ের অনুসন্ধানে প্রকাশ পায়, বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বর্তমানে জেলা পরিষদ নারায়ণগঞ্জ এর সদস্য মো: মাসুম আহম্মেদ’র বিরুদ্ধে বহির্ভূত সম্পদ, বিলাসবহুণ বাড়ী, গাড়ী, দুটি ইটভাটার মালিকানা অর্জন এবং গভীর নলকূপ দেয়ার নামে জনসাধারণের নিকট থেকে টাকা আদায় সম্পর্কিত অভিযোগ উঠে। এ বিষয়ে রেকর্ডপত্রসহ নারায়ণগঞ্জ দুর্নীতি দমন কমিশনে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য প্রদানের জন্য বিগত ৩১ আগস্ট বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এর মাধ্যমে অভিযোগ নোটিশগুলো জারী করে সার্ভিস রিটার্ণ প্রেরণের জন্য অনুরোধ করা হলে থানার এএসআই (নিঃ) মো. জাহাঙ্গীর আলম অভিযোগ সংশ্লিষ্টের নিকট সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে, নোটিশগুলোর পিছনে স্বাক্ষর গ্রহণপূর্বক তা জারী করলেও তিনি নোটিশে বর্ণিত তারিখে কমিশনে উপস্থিত হয়ে রেকর্ডপত্রসহ তার বক্তব্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকেন। পরবর্তীতে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ১৯(২) ধারায় মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email