বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
Led02বন্দররাজনীতি

দুর্নীতিবাজদের শামীম ওসমান ‘ওরা এত খায়, মনে হয় বাংলাদেশটাকেই চিবিয়ে খাবে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দুর্নীতি ও ঘুষখোরদের তীব্র সমালোচনা করে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, খাওয়ার জন্য পাগল হয়ে থাকে, ওরা এত খায়, মনে হয় ওরা বাংলাদেশটাকেই চিবিয়ে খাবে। তারপরেও ওদের খুদা মিটে না। এটা সব জায়গাতে আছে। এদের মধ্যে সেলিম ওসমান ব্যতিক্রম। আমার বড় ভাই সেলিম ওসমান ধান্ধা করার জন্য আজকে আসে নাই। উনার প্রতিটি টাকা রক্ত বিক্রি করা পরিশ্রমের। আজকাল খুব কম মানুষই আছে, নিজের টাকা দিয়ে প্রতিষ্ঠান করে।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমানের গণ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় বন্দরের সমরক্ষেত্র এলাকায় এ কথা বলেন তিনি।

বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্দা আলহাজ্ব এম.এ রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকনে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান।

শামীম ওসমান বলেন, আমরা বিশ্বাস রাজনীতি একটা ইবাদত। ২০০১ সালে আমাকে ফেল করিয়ে দেওয়া হলো। আড়াই লাখ টাকা নিয়ে দেশ ছেড়ে চলে গেলাম। সেখানে ১৮ ঘন্টা কাজ করতাম। অনেকে বলতো ৫ বছর এমপি ছিলা কি করলা? আমি মনে মনে ভাবতাম, আর হাসতাম। কারণ আমার পিতা একেএম সামসুজ্জোহা। পয়সা কামানোর জন্য, ধান্ধা করার জন্য রাজনীতিতে আসি নাই।

তিনি আরও বলেন, আজকে আমি যখন এখানে বসে বক্তব্য দিচ্ছি, তখন বাংলাদেশের কোন না কোন জায়গায় বসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা চলছি, কোন না কোন জায়গায় বাংলাদেশকে আফগানস্থান, লিবিয়া কিংবা সিরিয়া বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। আপনারা কি করবেন সেই সিদ্ধান্ত আপনার। তবে, আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আমি বলছি, আমরা লড়াই করবো এবং লড়াইয়ে জিতবো। কারণ অন্যায় কোন সময় ন্যায়ের সাথে পারে না। সত্য কোন সময় মিথ্যার সাথে পারে না। আজকে তারা আবারও জেগে উঠেছে।

বিএনপি-জামাতের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা রাজনীতির নামে মানুষ পুরিয়ে মারে, তাদেরকে আমি গণতান্ত্রিক রাজনীতিবিদ বলতে পারি না। অনেকে ইসলামের নামে রাজনীতি করে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চন্দন শীল, নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, একেএম সেলিম ওসমানের সহধর্মীনী নাসরিন ওসমান, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, জাতীয়পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি সানাউল্লাহ সানু, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান, বিকেএমএ‘র নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, বাংলাদেশ ক্লথ মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রবীর কুমার সাহা, এনসিসিআই‘র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরশেদ সারোয়ার সোহেল, বাংলাদেশ ইয়ার্ণ মার্চেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি লিটন সাহা, বাংলাদেশ হোসিশারী সমিতির সভাপতি নাজমুল আলম সজল, বাংলাদেশ নিটিং ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি সেলিম সারোয়ার, বাংলাদেশ গার্মেন্টস রিসাইক্লিং কালার্ড ফাইবার ম্যানু এন্য ট্রেডার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মাহফুজুর রহমান খান, বাংলাদেশ পালস্ এন্ড লেনটিল ক্র্যাসিং মিলস্ ওনার্স এসোসিশনের সভাপতি এড. সুলতান উদ্দিন নান্নু ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email