শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েরাজনীতি

না.গঞ্জে জুড়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, আসামী ২৩৫; গ্রেফতার ৭

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রোববার বিএনপির হরতাল কর্মসূচিতে নাশকতার অভিযোগে জেলা জুড়ে ৫টি মামলায় দলটির ২৩৫জন নেতার নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়েছে। যার মধ্যে একটি মামলার বাদি এক ছাত্রলীগ নেতা। অন্য সব মামলার বাদি পুলিশ।

গতকাল রোববার (৩০ আগস্ট) বিকেল থেকে আজ (৩০ অক্টোবর) বিকেল পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন থানায় মামলা গুলো দায়ের করা হয়। যাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারাও আসামী হিসেবে রয়েছেন।

এসব মামরায় এ পর্যন্ত ৭জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে, হরতালের সমর্থনে নারায়ণগঞ্জ জুড়ে বিএনপির মিছিলকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়েছে দলটির নেতাকর্মীরা। বাসে আগুন-ভাঙ্গচুর, টায়ার পুড়িয়ে রাস্তা অবরোধসহ নানা ঘটনায় সাধারণ মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা। সব মিলিয়ে রোববার (২৯ অক্টোবর) থমথমে অবস্থা বিরাজ করেছে জেলা জুড়ে।

যে থানায় যত আসামী:-

* রূপগঞ্জে মহাসড়কে নাশকতার অভিযোগে বিএনপি ৭৪ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়েছে। রোববার বিকেলে রূপগঞ্জ থানায় বিএনপির ৭৪ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়। মামলার বাদী হিসেবে রয়েছেন আবু বকর নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী।

মামলার আসামিদের মধ্যে রয়েছেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী মনির ও মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া দিপু, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক খোকন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাহিদ হাসানসহ ৭৪ জন।

*সোনারগাঁয়ে সড়কে প্রতিবন্ধকতা, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার অভিযোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সোনারগাঁ থানা বিএনপির সভাপতি আজহারুল ইসলাম মান্নানসহ ৮৫ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে এবং আরও ৭০-৮০ জনকে অজ্ঞাত অভিযুক্ত করে মামলা করা হয়। সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুহিবুল্লাহ বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

*আড়াইহাজারে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ ও জেলা যুবদলের আহ্বায়ক সাদেকুর রহমান সাদেকসহ ৩১ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। সোমবার (৩১ অক্টোবর) আড়াইহাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাসেল মিয়া বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

*হরতালে শহর জুড়ে নাশকতার অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় ৪৫জনকে আসামী করে মামলা করেছে পুলিশ। সোমবার (৩১ অক্টোবর) পুলিশ পুরদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এই মামলায় এখন পর্যন্ত ৭জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

*ফতুল্লার ভুইগড়ে ঢাকা-নারায়নগঞ্জ লিংক রোডে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে প্রতিবন্ধকতা, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার অভিযোগে কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে প্রধান আসামী করে ২৭ জনের নাম নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো অনেককে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। সোমবার (৩০ অক্টোবর) ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাপ্পী সরদার বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু বলেন, আমরা এই মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং অবিলম্বে এসব মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাই। এসম মামলা-হামলা দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের দাবিয়ে রাখা যাবে না। পুলিশকে বলবো, এসকল মামলা করা থেকে আপনারা বিরত থাকুন; নয়তো আপনাদেরও একদিন জনগনের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email