বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
Led01রাজনীতি

বিএনপি বিশাল বটবৃক্ষ, অনেক পাখি আসবে-ফল খাবে-চলে যাবে: মামুন মাহমুদ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ‌্যাপক মামুন মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি একটি বিশাল বটবৃক্ষতে পরিনত হয়েছে। অনেক পাখি এই বৃক্ষের ডালে আসবে, ফল খাবে; আবার চলে যাবে।কিন্তু এই গাছ আমাদের আমরাই এই গাছকে পানি দিবো। এই গাছের ছায়ার নিচে আমরাই কাটাবো। ভয়ের রাজনীতি থেকে আমরা বেড়িয়ে এসেছি। আমাদেরকে মামলা দিলেও আর আমরা বাড়ি ছাড়বো না। বাংলাদেশের মানুষ আমাদের এক দফা দাবি আদায় করে ছাড়বে ইনশাহআল্লাহ।

সোমবার (১০ জুলাই) বিকেলে জালকুড়ি এলাকায় আয়োজিত সিদ্ধিরগঞ্জ ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি সিদ্ধিরগঞ্জের প্রতিটি ওয়ার্ডে যাবো। তাদের সাথে কথা বলবো, চা খাবো। আজ এখানে বিএনপির নেকার্মীর বাইরেও অনেক সাধারণ মানুষ এখানে সম্পৃক্ত হয়েছে। এটাই আমাদের শক্তি। শুধু বিএনপির নেতারাই আন্দোলন করলে সরকারের পতন হবে না। সাধারণ মানুষেরা আমাদের পাশে এসে দাঁড়ালে সরকারের পতন নিশ্চিত। আমরা জনগনের অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন করছি। নিজেদের পকেট ভারি করার জন্য নয়। অনেকবার ক্ষমতার স্বাদ পেয়েছি, কিন্তু একটি কানাকড়িও নিজের পকেটে ঢুকাই নাই। প্রত্যেকটা নেতাকর্মী এখানে নির্যাতিত। আমি নির্যাতিত নেতাকর্মীদের পাশে রয়েছি। আপনাদের কোন ভয় নাই।

মামুন মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনা সকালে উঠেই মনে করে আইতাছে খালেদা জিয়া। ঘুমের থেকা লাফ দিয়ে উঠেই কয় খালেদা জিয়ারে আরেকটা মামলা দাও। তারেক রহমান লন্ডনে আছে তারপরেও ভয় পায়। আরে তারেক রহমানতো বীরের বেশে বাংলাদেশে আসবে। জনগন তাকে গ্রহন করবে এবং বাংলাদেশের দায়িত্ব তার হাতে তুলে দিবে। এই দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই তো এই দলের মালিক। আর এই দলের ঐক্যের প্রতীক হলো আমাদের নেতা তারেক রহমান।

মামুন মাহমুদ আরও বলেন, আমাদের পিঠ তো আরও ১৫ বছর আগেই দেয়ালে ঠেকে গেছে। এখন তাদের (আওয়ামী লীগ) পিঠ ঘরের কোনায় নিয়ে ঠেকিয়েছি। এই ঘরের কোনা থেকে আর তারা বেড় হতে পারবে না। দেখেন এখন মিছিল মিটিং এ পুলিশও বাধা দেয় না। আর আওয়ামী লীগের লোকেরা চিন্তা করে বাধা দিয়ে কি করবো, ৬মাসের মধ্যে বিএনপি ক্ষমতায়েআসবে; তখন তো ওরা আমাদের ছাড়বে না। ঘরের বাইরে পালিয়ে থাকা কত মুশকিল সেটা আমরা জানি তাই আমরা তাদের ক্ষমা করে দিবো। কিন্তু যারা আমদের গুম করেছেন, খুন করেছেন, আমাদের মা বোনদের উজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছেন তাদের ক্ষমা করা হবে না। তাদের জনগনের আদালতে দাঁড় করানো হবেই।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সিদ্ধিরগঞ্জ ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি বাবুল প্রধান ও সঞ্চালনা করেন ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল দেওয়ান।

অনুষ্ঠানে আর উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য সচিব শাহ-আলম হিরা, সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ, উকিল উদ্দিন ভূইয়া.  গাজী মনির হোসেন, টি,এইচ, তুফা, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি দেলোয়ার হোসেন খোকন, জাহাঙ্গীর হোসেন, লিয়াকত হোসেন লেকু, যুবদল নেতা শহিদুল ইসলাম, জুয়েল রানা, ইকবাল হোসেন, ৯নং ওর্য়াড বিএনপির নেতা হারুন মাস্টার, ৯নং ওর্য়াড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম দেওয়া প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email