মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Led04রাজনীতি

শেখ হাসিনার কাছে শিখেছি রাজনীতি মানে পদপদবি না, ইবাদত: শামীম ওসমান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে একজন আছে পলিটিক্যাল প্রস্টিটিউট। তিনি বলেছেন পুলিশ ছাড়া নামতে। আমি পুলিশের কাছে অনুরোধ করছি আপনাদের যত পুলিশ আছে, সব তাদের পক্ষে যান। সব নিয়ে ঘোষণা করেন পুলিশ আমাদের পক্ষে আছে, তারপর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ছাড়া করে দেবো। আমি বলি আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাই হবেন সরকার প্রধান। ওরা বলে পা দিয়ে ধুলোর সাথে মিশিয়ে ফেলবো। আমরা কি তাহলে লেমন জুস খাবো। সকাল বেলা যদি কাশি দেয়া নারায়ণগঞ্জ পুরা খালি হইয়া যাইবো। সেদিন শুনলাম, আমি নাম বলবো না। নাম বললে নেতা হয়ে যায়। সে বললো ‘পুলিশ ছাড়া রাস্তায় নামেন’। আমি সেদিন বলেছি, পুলিশও তোগো দিয়া দিলাম যা। এবার ক কহন নামবি। আমাদের বল তাতে সমস্যা নাই, কিন্তু নেত্রী নিয়ে কিছু বললে খবর আছে। পুলিশ ফুলিশ সব দিলাম তগো। কখন নামতে চাস আর কখন খেলতে চাস বল। ২৪ ঘন্টার মধ্যে নারায়ণগঞ্জে এই মাথা থেকে শুরু করে ওই মাথা পর্যন্ত শেষ করে ঢাকায় গিয়ে খেলবো।

সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকালে সাবেক এমপি প্রয়াত আবুল হাসনাত সাহেবের বাড়িতে, দেশী-বিদেশী অপশক্তির বিরুদ্ধে ‘দেশ বাঁচাও’ স্লোগানে দেশ প্রেমীদের ঐক্যবদ্ধ হাওয়ার আহ্বানে ১৬ সেপ্টেম্বর জনসভা সফল করার লক্ষ্যে, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি শামীম ওসমান বলেন,বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে আমাদের নেতাকর্মীদের পরিবারের উপর হামলা করেছে। আমাদের বাড়িঘর ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে, হীরা মহল ভাঙ্গার চেষ্টা করেছে, বাইতুল আমান ভাঙ্গার চেষ্টা করেছে। সেলিম ভাইকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে। ওরা (বিএনপি) আর আমরা এক না, ওরা এমন করে বলেই ক্ষমতা চ্যুত হয়েছে। ওরা খুনি খালেদা জিয়া-তারেক রহমানের কর্মী আর আমরা জাতির পিতার সৈনিক ও শেখ হাসিনার কর্মী। তাইতো ওদের আর আমাদের মধ্যে তফাৎ। ওরা বঙ্গোপসাগর ও সেন্টমার্টিনকে টার্গেট করে আমাদের ক্ষতি করতে চায়, আমাদের দেশকে সিরিয়া, আফগানিস্তা, লিবিয়া ও ইউক্রেন বানাতে চায়। ২০০১ সালে আমরা ক্ষমতায় আসতাম, তখন আমাদের কাছে গ্যাস চাইছিলো ওরা। আমাদের নেত্রী বলে দিয়েছে বাংলাদেশে ৫০ বছরের গ্যাস মজুদ না করে আমি কাউকে গ্যাস দিবো না। কিন্তু মেডাম খালেদা জিয়া বলেছেন আমরা ক্ষমতায় আসলে গ্যাস দিবো।

তিনি বলেন, আমাদের কারও রাজনীতি করার কথা ছিলো না। মাত্র সাড়ে ৩ বছরে বঙ্গবন্ধু একটা বিধ্বস্ত বাংলাদেশকে নিন্মআয়ের দেশ বানিয়ে ফেললেন। কিন্তু আমরা বাঙ্গালী বেঈমানের জাত সেই জাতির পিতাকে মেরে ফেললাম। বেচেঁ গেলো ২টা মেয়ে। কিন্তু তিনি (প্রধানমন্ত্রী) কিন্তু প্রতিশোধ নেয় নাই। শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখেছি রাজনীতি মানে পদপদবি না, রাজনীতি মানে হলো ইবাদত করা মানুষের সেবা করা। ২০০১ এর আগে বুঝতাম না, ২০০১ এর পরে একটা ঘটনায় বুঝতে পারছি।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে শেখ হাসিনাকে নিয়ে গালি দেয়া হচ্ছে, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গালি দেয়া হচ্ছে। আমরা কি মেনে নিবো? সোনারগাঁয়ে আমাদের নান্নু আর সোহাগ একটা লুইচ্চা ধরছে। এই লুইচ্চা হুজুরকে ধরছে তাই নাকি নান্নু আর সোহাগকে পায়ের নিচে পিশে ফেলবে। তখন আমাদের ছাত্রলীগ, যুবলীগ ওরা সবাই ক্ষেপে গেলো প্রোগাম করবো। আমি ওদেরকে থামিয়ে ছিলাম।

এমপি শামীম বলেন, শেখ হাসিনা এখন আওয়ামী লীগের নেত্রী না, বাংলাদেশের নেত্রী না, তিনি এখন বিশ্ব নেত্রী। বিট্রিশ প্রধানমন্ত্রী কত সভ্য দেখেন, পা ভেঙ্গে বসে আমার নেত্রী সাথে কথা বলেছে তারা। আমি সেলফি তুলতে গেলে ফোন ধরতে পারি না। কিন্তু আমেরিকার রাষ্ট্রপতি দেখে সেলফিও তুলেছে নেত্রীর সাথে। সবাই সম্মান দিয়েছেন। আমাদের অকৃত্তিম বন্ধু, যাদের ৩০ লাখ সোলজাম আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধে মারা গেছিলো সেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী কিভাবে সম্মান করেছে সেটা দেখার বিষয় না। বড় কথা হলো এই দেশের মানুষ তাকে ভালোবেসেছে।

নেতাকর্মীদের উদ্যেশে তিনি শামীম ওসমান বলেন, আগামী ২-৩ মাস খুব নোংরা খেলা হবে। ৭১ স্বাধীনতা বিরোধী থেকেও খারাপ খেলা হবে। কথা হইলো দেখা যায় লড়া যায়, সমস্যা হইলো মীর জাফর আর খন্দকার মোস্তাকদের নিয়ে। আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে, হাইব্রীড না, অরিজিনাল ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করেন। প্রধানমন্ত্রীকে আরেকবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই। আমার নাতী নাতনীদের ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে চাই।

সোনারাগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলার চেয়ারম্যান এড. শামসুল ইসলাম ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাতের সার্বীক তত্ত্বাবধানে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী (বিরু), সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যাস ইঞ্জি. মাসুদুর রহমান মাসুমসহ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email