রবিবার, মে ২৬, ২০২৪
Led01জেলাজুড়েবন্দররাজনীতি

হকার ইস্যুতে সেলিম ওসমান: ‘মায়া কান্না করা ব্যক্তিরা আমাদের অশান্তিতে রাখে’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান বলেন, হকার উচ্ছেদের পর নগরবাসীরা শান্তিতে আছেন এটতে আমাকে ধন্যবাদ দেয়ার কিছু নেই। এই ধন্যবাদের প্রাপ্য মেয়র আইভী। উনি যদি উদ্যোগ না নিতেন তাহলে হয়তো এটা সম্ভব হতো না। তবে এই সমস্যাগুলো শেষ হয়নি। অনেকেই মায়া কান্না কাঁদছেন। তারা বলছে রোজার মাসে তাদের বসিয়ে দিতে হবে। যারা মায়া কান্না করেন তারা আমাদের অশান্তিতে রাখে।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বন্দর উপজেলা পরিষদের এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি।

সভায় এমপি সেলিম ওসমান আরও বলেন, আর হকার আগের তুলনায় এখন সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে রাস্তাঘাট বন্ধ হয়ে গেছে প্রায়। শুধু হকার সমস্যা নারায়ণগঞ্জের ট্রাক বাস অটো এবং ইজি বাইকের সবটাই ধ্বংস হয়ে গেছে প্রায়।

সংসদ সদস্য বলেন, এখানেও মুক্তিযুদ্ধ ভবন আছে। আমি তাদের বলেছি, মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মাসে একটা করেও যেন বিভিন্ন মতবিনিময় সভার মত অনুষ্ঠান হয়। এখন একটি ভাষার মাস চলছে, আমাদের এই মাসকে শ্রদ্ধা করতেই হবে। আমাদের এই নারায়ণগঞ্জ থেকে থেকে কিন্তু ভাষা আন্দোলন প্রথম শুরু হয়। আমার ইউএনওর কাছে অনুরোধ থাকবে আমরা যেহেতু আমরা একটি স্মৃতিসৌধ করতে পেয়েছি, সেটাকে আরো সাজিয়ে গুছিয়ে একুশে ফেব্রুয়ারি প্রোগ্রামটা যেন আমরা সেখানে করতে পারি।

সংসদ সদস্য আরও বলেন, পুলিশরা কোন কাজ করতে গেলে সেখানের নেতারা বিভিন্ন সময় ভয় দেখান, অমুকের দুলাভাই, অমুকের শালা, অমুকের আত্মীয় বলে পুলিশকে কাজ করতে দেয় না। পুলিশকে বলতে চাই অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই রাখবেন। তাদেরকে কোন রকম ছাড় দেবেন না। তাহলে দেখবেন সমাজের মাদক আসক্ত, লুটপাট ও ইভটিজিং থাকবে না। যদি কেউ অপরাধ করে তাহলে সেখানে অবশ্যই প্রশাসন ব্যবস্থা নিবে। মা-বাবা, ভাইবোন, আত্মীয়-স্বজন এরা বাসায় থাকা অবস্থায় শাসন করতে হবে। যদি তারা না পারেন, তখন প্রশাসনকেই এর ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রশাসন ব্যবস্থা নিলে কোন অপরাধের আত্মীয় স্বজন কোন ধরনের তদবীর চালাতে পারবেন না।

সভায় উপস্থিত ছিলেন, বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ রশিদ, ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সানাউল্লাহ সানু, নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. আবুল ফজল মুহাম্মদ মুশিউর রহমান, বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম. এ মোহাইমিন আল জিহান, বন্দর কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিশোধের চেয়ারম্যান মো দেলোয়ার হোসেন প্রধান, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিনসহ আরও জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email