রবিবার, মে ১৯, ২০২৪
Led05জেলাজুড়েবিশেষ প্রতিবেদনরাজনীতিশিক্ষা

অবরোধের প্রভাব নেই না.গঞ্জে, বেড়েছে যান চলাচল

#স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে কিছুটা ফাঁকা ছিল: পথচারী
# আড়াইহাজার-সোনারগাঁও থেকে নিয়মিত আসতে পারে না: শিক্ষার্থী
# দূর থেকে আসা শিক্ষর্থীদের উপস্থিতি কম: শিক্ষক
# এতো গাড়ি ছিলো না, যেটা অবরোধে দেখা যাচ্ছে: টিআই করিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ:পঞ্চম দফায় জামাত-বিএনপির ডাকা দুই দিনের অবরোধ কর্মসূচিতে কোনো প্রভাব নেই নারায়ণগঞ্জে। নগরী ও জেলা উপজেলায় সব ধরনের যানবাহন চলাচল করছে স্বাভাবিকভাবে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চলতে দেখা গেছে দূরপাল্লার যানবাহনও। এছাড়া শহরতলীতে লঞ্চ, ট্রেন, বাসসহ ক্ষুদ্র গণপ‌রিবহ‌নেও ছিলো স্বাভাবিক দিনের মতো। তবে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি অন্যান্য দিনের তুলনায় কিছুটা কম থাকলেও পরীক্ষার কেন্দ্র গুলোতে ছিলো সম্পন্ন। বিভিন্ন মার্কেট ও অফিস আদালত প্রতিদিনের ন্যায় চলমান ছিলো, যার ফলে নগরীতে যানবাহনের বেশ চাপ লক্ষ্য করা গেছে।

বুধবার সকাল থেকে নারায়ণগঞ্জ নগরীর বিভিন্ন এলাকা ও মহাসড়কে সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, সর্বত্র সব ধরনের যানবাহন চলছে স্বাভাবিকভাবে। এদিকে ট্রফিক পুলিশ বলছে অন্যান্য দিনের থেকে বেশী লোকজন বের হয়েছে রাস্তায় গণপরিবহনের পাশাপাশি প্রাইভেট গাড়ি গুলাও বের হয়েছে। নগরীতে সব ধরনের গণপরিবহন চলাচল করছে স্বাভাবিকভাবে।

শহরে দোকানপাট, সাধারণ জীবনযাত্রা, কর্মযজ্ঞ স্বাভাবিক চললেও আতঙ্কে আছেন শিক্ষার্থীরা। গণপরিবহনের পাশাপাশি চলাচল করছে ব্যক্তিগত গাড়ি, লম্বা যাত্রায় শিক্ষার্থীদের বাড়ি থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে দেননা অভিভাবকরা।

কথা হয় নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেনীর শিক্ষার্থী সর্ণা আক্তার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, আমাদের পরীক্ষার সময়, নিয়মিত আমাদের ক্লাসে আসতে হয়। যাদের বাড়ি আশে পাশে তারা খুব সহজে আসতে পারলেও আড়াইহাজার, সোনারগাঁও থেকে এসে যারা ক্লাস করে তারা নিয়মিত আসতে পারে না। কেননা অবরোধে আতঙ্ক কাজ করে, ভয় থাকে যদি রাস্তায় কোন বিপদের সমুক্ষীন না হয়।

সরকারি তোলারাম  কলেজের অধ্যক্ষ বিমল চন্দ্র দাস লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমাদের দৈনন্দিন যে কাজ আছে আমরা সেগুলো চলমান রেখেছি। আজকে অনার্স প্রথম বর্ষের পরীক্ষা চলছে। পরীক্ষা যথা নিয়মে যথা সময়ে চলছে। বিএনপি-জামাতের অবরোধের কোন প্রভাব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরেনি। শিক্ষার্থীদের মধ্যেও অবরোধের তেমন কোন প্রভাব নেই। কিন্তু যারা দূর দূরান্ত থেকে আসে, তাদের উপস্থিতি ক্লাসে অনেকটা কম। তবে, স্থানীয় বা কলেজ সন্নিকটে যারা আছে তারা সবাই এসেছে এবং সব গুলো ক্লাস সম্পন্ন হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জে নগরীর ২নং রেলগেট, চাষাঢ়া, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের লিংক রোড,চাষাড়া-আদমজী ইপিজেড সড়ক ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের পুরাতন (চাষাঢ়া-পোস্তগোলা) সড়কসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রতিদিনের নিয়মে স্বাভাবিক যানজটও লক্ষ্য করা গেছে। যাত্রীবাহী বাস ও গণপরিবহনের পাশাপাশি নগরী ও আন্তজেলা মহাসড়কে পণ্যবাহী ট্রাক, কাভার্ডভ্যানসহ অন্যান্য যানবাহনও স্বাভাবিকভাবে চলাচল করছে। এসব সড়কে কোথাও অবরোধের সমর্থনে মিছিল পিকেটিং-এর খবর পাওয়া যায়নি। অন্যান্য দিনের তুলনায় এদিন সড়কগুলোতে যান চলাচল ও মানুষের উপস্থিতি অনেকটা বেশিই ছিলো।

এদিকে, কর্মসূচির প্রথম দিনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জ অংশে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। সকাল থেকে আঞ্চলিক পরিবহনের পাশাপাশি দূরপাল্লার বাস চলাচল করতে দেখা গেছে। কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য বের হওয়া যাত্রীরা সহজেই তারা গন্তব্যস্থলে যেতে পারছেন।

সাইনবোর্ড এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা পথচারীর সাথে কথা হয়। তিনি বলেন, অবরোধের অন্য দিন যানবাহন পেতে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকে গাড়ি পেতে হতো। কিন্তু আজ এমন কোনো ভোগান্তির শিকার হইনি। মনে হচ্ছে নিদ্রিষ্ট সময়ে গন্তব্যস্থলে যেতে পারবো।

বেসরকারি চাকরিজীবী অর্কন দাস ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জে এসেছেন। তিনি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, অন্যান্য দিন খুব যানজট থাকে। আজ খুব তাড়াতাড়ি চলে আসতে পেরেছে। কিন্তু তাই বলে রাস্তা একেবারে ফাঁকা ছিল না। স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে কিছুটা ফাঁকা ছিল।

মার্ক টাওয়ারের দোকানি প্রনয় কুমার দে লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, অবরোধ পরিস্থিতিতে স্বাভাবিকের তুলনায় লোকজন কম থাকে। তারপরও চলমান অবরোধে লোকজন মোটামুটি ভালোই আছে। বেচাকেনাও মোটামুটি চলছে।

এছাড়া কোথাও কোন ভাঙ্গচুর-অগ্নিকান্ডের ঘটনা না থাকলেও বিশৃঙ্খলা ও নাশকতার ঘটনা এড়াতে জেলার গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি স্থানে সতর্ক রয়েছে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ। অবরোধে মধ্যেও শহরে বঙ্গবন্ধু সড়কসহ বেশ গুরুত্বর্পূণ সড়কে চিরোচেনা যানজট দেখা গেছে।

চাষাঢ়া পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর (ইনচার্জ টিআই) এমএ করিম লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, অবরোধ থাকলেও আমরা আমাদের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ঠিকঠাক আছে। অন্যান্য দিনের মতোই সড়কে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। বাস, ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, প্রাইভেট কারসহ ব্যাক্তিগত অনেক যানবাহন ঠিকঠাক চলছে। আমাদের ট্রাফিক পুলিশ যথেষ্ট সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। যাতে করে মানুষ নির্ভিগ্নে জাতায়াত করতে পারে। অবরোধের না থাকার সময়ে এতো গাড়ি ছিলো না, যেটা আজ অবরোধের সময় দেখা যাচ্ছে শহরে। যাত্রীরা এখনো কোন ভোগান্তির অভিযোগ করেনি, যদি কেউ কোন ভোগান্তির অভিযোগ করে তাহলে আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email