বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
Led04রাজনীতিসদর

অশান্তি সৃষ্টি করলে বাংলাদেশে আপনাদের অস্তিত্ব থাকবে না: সেলিম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, ‘অতিতে কি হয়ে গেছে, সেটা নিয়ে সময় নষ্ট করা ঠিক না। এখন আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে নিয়ে চিন্তা করতে হবে। আমার জীবন যতদিন চলবে, স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের পাশে আমি সব সময় থাকবো।’

নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এর নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিনি একথা বলেন।

এসময় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে সেলিম ওসমান বলেন, নির্বাচনের নামে যারা আজ অশান্তি সৃষ্টি করছে। আমদের প্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে আপনারা সরকার গঠন করবেন, তাহলে নির্বাচনে কেন আসছেন না। কেনো আমাদের বাচ্চাদের লেখাপড়ার ক্ষতি করছেন। ভুলে জাবেন না, এই নারায়ণগঞ্জের লাখ লাখ মানুষ ২০০০ সালে রাজপথে নেমেছিলো; হরতাল অবরোধের বিরুদ্ধে। প্রয়োজনে আবার আমরা নামবো। নারায়ণগঞ্জে আপনাদের অস্তিত্ব থাকবে না, বাংলাদেশে আপনাদের অস্তিত্ব থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা যুদ্ধ করেছিলাম। এখন তারই কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছে। অনেকে আমাকে দানবীর বলে ডাকে। এখানে যারা বাচ্চারা আছো তোমরা দোয়া করবে, যাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আবারো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই; আল্লাহ তোমাদের কথা নিশ্চেই শুনবে।

অনুষ্ঠানে নগরীর নবাব সিরাজউদ্দৌলা সড়কে হকারদের জন্য যানযট লেগে থাকে এবং এর নিরসনের জন্য সেলিম ওসমানের কাছে অনুরোধ করে কয়েকজন শিক্ষার্থী ও অভিভাবক। এর প্রতিকারে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আপনারা এই অবস্থার চিত্র ধারণ করুন এবং জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে পাঠান। এই বিষয়ের নিউজ গুলো একটু গুরুত্ব দিয়ে আপনারা করেন, তাহলে আমাদের কাজ করতে অনেক সুবিধা হয়। নিউজ গুলো যাতে সুন্দর হয়। আমাদের তো একটা সুযোগ দিতে হবে।

তিনি বলেন, যেমন আগুন দিলে হাত পুড়ায় দিতে হবে। তেমন ভাবে প্রয়োজন পরলে সমস্ত ছাত্রছাত্রী নিয়ে রাস্তায় মানববন্ধনও করতে হবে। এই অবস্থা থেকে আমাদের মুক্ত হতে হবে।

সেলিম ওসমান আরও বলেন, আমি মানুষের সাথে বেইমানি করবো না। আমার মায়ের নির্দেশ, যে আমাকে জনগনের জন্য কাজ করতে হবে। গত সারে ৯ বছর আমি একটানা জনগনের জন্য কাজ করে গেছি। যার মধ্যে আড়াই বছরের মতো করোনার কারনে কোন কাজ করতে পারি নাই। তাই যদি আমাকে আরেকবার সুযোগ দেয়া হয়, তাহলে আমি নির্বাচিত হয়ে বাকি কাজ গুলো সমাপ্ত করতে পারবো। আমরা চাই বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবার আসুক, আমরা যেনো ভালো থাকতে পারি।

তিনি বলেন, যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছেন তাদের কাছে অনুরোধ করলাম, আপনাদের ঘরেও ছেলে-মেয়ে আছে। হয়তো ওরা বিদেশে পড়ে। এবার আপনারা থাইমা জান। ২০০০ সালে বলে দিয়েছিলাম, যদি প্রয়োজন হয় তাহলে লাল পতাকা নিয়ে আসবো। লাল পতাকা নিয়ে যাতে আসতে না হয়। আপনারা ধৈর্য ধারণ করুন। আপনারা ভালো করে ভোট চান, সরকার গঠন করেন; কারো কোন আপত্তি থাকবে না। কিন্তু সংবিধানের বাইরে গিয়ে অন্য কিছু করার চেষ্টা করলে, যারা বাঙ্গালি মুক্তিযোদ্ধার বংশ; এরা কিন্তু আপনাদের ছাড় দিবে না।

এসময় বিদ্যালয়ের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীলের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিকেএমইএ’র নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি আরিফ আলম দিপু, মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি মোদাচ্ছেরুল হক দুলাল, এনসিসি ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুল হাসান মুন্না, নারায়ণগঞ্জ কলেজের উপাদক্ষ ড. রুমন রেজাসহ বিদ্যালয়ের গভর্নিং বডির অন্যান্য সদস্য ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email