বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪
রাজনীতি

এক ঘন্টা সময় দিবেন, না.গঞ্জে বিএনপি থাকতে পারবে না: শাহ্ নিজাম

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ্ নিজাম বলেছেন, তাদের (বিএনপি) দাবি সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। আর লন্ডন থেকে এই মুলা ঝুলিয়েছেন তারেক জিয়া। গতকাল ২৮ অক্টোবর নাকি তারা ক্ষমতায় আসবে। ওদের মুলা ঝুলানো শেষ। এখন তারেক জিয়ার বা ফখরুলের কথায় ঢাকায় কোন বিএনপির নেতাকর্মীরা আসবে না। বিএনপি যখন দেড় কোটি ভুয়া ভোটার তৈরি করেছিলো, তখন বাংলাদেশের সব দল মিলে সেই নির্বাচন বয়কট করেছিলো। সেদিন ম্যাডাম খালেদা জিয়া বলেছিলো, তত্বাবধায়ক সরকার আবার কি? পাগল আর শিশু ছাড়া কেউ নিরপেক্ষ হতে পারে না। তাই বাংলার ১৮ কোটি মানুষের ভাগ্য তো আমরা পাগল বা শিশুর কাছে ছেড়ে দিতে পারি না।

রোববার (২৯ অক্টোবর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মহানগর আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে তিনি একথা বলেন। বিএনপির হরতালের বিরুদ্ধে এবং ঢাকায় পুলিশ কনস্টেবলকে নির্মম ভাবে হত্যার প্রতিবাদে সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি আরও বলেন, আমি সকালে দেখলাম নারায়ণগঞ্জে কিছু টোকাই বিএনপি অশান্তি সৃষ্টি করছে। আমি ঢাকা তেকে আসার সময় ভেবেছিলাম, কেউ যদি আমার গাড়ি আটকায় তাহলে তাদের সাথে আমি একাই খেলবো। কারণ শামীম ওসমানের নেতৃত্বে যারা রাজনীতি করে তারা একেকটি গেরিলা, একেকটা খেলোয়ার। আমি নারায়ণগঞ্জে প্রদক্ষিন করেছি, বিএনপির ওই টোকাইদের দেখার খুব ইচ্ছে ছিলো, কিন্তু তাদের দেখতে পারি নাই। গতকাল আমরা ৫০ হাজার নেতাকর্মী শামীম ওসমানের নেতৃত্বে ঢাকার শান্তি সমাবেশে যোগদান করেছি। সেখানে শামীম ওসমানকে বার বার স্টেজে ডাকা হলেও তিনি তার কর্মীদের ছেড়ে যাননি। এজন্যই তিনি শামীম ওসমান।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে শাহ্ নিজাম বলেন, আপনারা ঘোষণা দেন নারায়ণগঞ্জের কোন কোন জায়গায় বিএনপি আছে, এক ঘন্টা সময় দিবেন আমাদের যুবলীগ, ছাত্রলীগ, আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে; দেখবেন নারায়ণগঞ্জে কোন বিএনপি থাকতে পারবে না। যারা জ্বালাও পোড়াও করে তাদেরকে আমরা দল হিসেব মনে করি না। তাদের ধরি জঙ্গিবাদের অংশ হিসেবে।

এসময় মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দনশীলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, সহ-সভাপতি এড. হান্নান আহমেদ দুলাল, রবিউল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিএম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, দপ্তর সম্পাদক বিদ্যুৎ কুমার সাহা, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মৃধা, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভুইয়া সাজনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি জুয়েল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, আশ্ররাফুল হক শরিফ, আওয়ামী লীগ নেতা এস এম পারভেজ, মহানগর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক চৌধুরী এইচ এম শাহেদ, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়া হোসেন আনু প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email