বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪
ফতুল্লা

নিখোঁজ শিশুকে বাবা-মায়ের হাতে তুলে দিলো পুলিশ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মায়ের বকুনী খেয়ে অভিমান করে বাসা থেকে বের হয়ে হয়ে যাওয়া লামিম (১২) নামের এক শিশুকে ৩৫ ঘন্টার মধ্যে তার বাবা মায়ের হাতে তুলে দিয়েছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

স্কুল ছাত্র লামিম ফতুল্লা মডেল থানার সস্তাপুর মোস্তফার বাড়ীর ভাড়াটিয়া ফয়সালের পুত্র ও স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেন স্কুলের ৬ ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্র। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে ফতুল্লার সস্তাপুরস্থ বাসার নীচ থেকে নিখোঁজ হয় লামিম।

পরে, শুক্রবার সকালে শিশুটির বাবা ফতুল্লা মডেল থানায় সাধারন ডায়েরী করেন। শুক্রবার রাতের মধ্যেই পরিবারের কাছে শিশুটিকে ফিড়িয়ে দেয় পুলিশ।

সাধারন ডায়েরীতে উল্লেখ্য করা হয়, তারা ছয় তলায় ভাড়ায় বসবাস করে। লামিম গত কয়েকদিনে একাধিকবার জানালা দিয়ে দাড়িয়ে দাড়িয়ে নিচে প্রশাব করে। এ বিষয় নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাড়ীর মালিক ক্ষোভ প্রকাশ করে। বৃহস্পতিবার সকালেও লামিম একই কাজ করে। এতে সে লামিম কে বকাঝকা করে। এতে লামিম রাগ করে ঘরের দরজা খুলে বের হয়ে যায়। সে প্রথমে ভেবেছিলো হয়তো রাগ করে সিড়িতে বসে আছে। কিন্ত রাগ করে অনত্র চলে যাবে তা তিনি ভাবতেই পারেন নি। তিনি আরো বলেন লামিমের রাগ-জিদ অন্যান্য শিশুদের চাইতে একটু বেশীই বলা যায়। সহজে কোন কিছু মেনে নিতে চায়না।

সাধারন ডায়েরীর তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক জিয়াউর রহমান জিয়া জানায়, শিশুটি কে বৃহস্পতিবার বিকেলে লালখাঁ এলাকায় দেখতে পেয়ে সেখানকার স্থানীয় মাদ্রাসার কমিটির লোকজন দেখতে পেয়ে শিশুটিকে নিজেদের নিকট রেখে বাবা-মাকে খোঁজ করতে থাকে। পরে শুক্রবার রাত দশটার দিকে তারা শিশুটিকে ফতুল্লা থানায় নিয়ে আসে। তখন শিশুটির বাবা-মাকে সংবাদ দিলে তারা থানায় আসে। পরে শিশুটিকে তার বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email