বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
Led03রাজনীতি

প্রসঙ্গ ‘তৃণমূল বিএনপি’: তৈমুরের সাথে দ্বিমত খোরশেদ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আইনজীবী তৈমুর আলম খন্দকার ১৯৯৬ সালে বিএনপিতে যোগ দিয়েছিলেন। তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও মহানগর বিএনপির নেতৃত্বে ছিলেন। বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদও পেয়েছিলেন। তার ছোট ভাই মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। যিনি নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সাবেক সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর। প্রয়াত নাজমুল হুদার দল তৃণমূল বিএনপিতে যোগ দিচ্ছেন বিএনপির সাবেক নেতা তৈমুর আলম খন্দকার। বড় ভাইয়ের এমন সিদ্ধান্তে ছোট ভাই মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ একমত হতে পারেন নি।

১৮ সেপ্টেম্বর গণমাধ্যমে এক বার্তায় নিজের মত প্রকাশ করে বলেছেন, ‘তৈমূর আলম খন্দকার আমাদের পরিবারের একমাত্র ভরসাস্থল ও নীতি নির্ধারক। তবে তার বর্তমান রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের সাথে আমরা একমত নই’।

খোরশেদ আরও বলেন, “মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি একটি মহাসমুদ্র। এই মহাসমুদ্রে আমার মত নগন্য একজনের থাকা না থাকায় কিছু আসে যায় না।তবুও বলতে চাই আমৃত্যু আমি বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল হয়ে বিএনপিতেই থাকতে চাই। হয়তো আর কোনদিন দলের কোন পদ পদবী পাবো না, এখনো প্রথমিক সদস্য ব্যাতীত কোন পদে আমি নেই। তবুও দলের সাধারণ সদস্য হিসাবে, একজন কর্মী হিসাবে কাজ করে যাব। বিএনপি যদি আমাকে বহিষ্কারও করে, তবুও আমি ধানের শীষের একজন ভোটার, বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী আদর্শের একজন অনুসারী ও শুভাকাঙ্ক্ষী হিসাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রতি আস্থাশীল ও দলের সাথে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

আমাকে ভালবাসেন এমন নেতাকর্মীদের ও নারায়নগন্জবাসীকে বিভ্রান্ত না হয়ে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান রইলো। তৈমূর আলম খন্দকার আমাদের পরিবারের একমাত্র ভরসাস্থল ও নীতি নির্ধারক।তবে তার বর্তমান রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের সাথে আমরা একমত নই।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email