শুক্রবার, জুন ১৪, ২০২৪
Led04শিক্ষা

বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকীতে বিদ্যানিকেতন স্কুলে ৫দিন ব্যাপি বইমেলা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৪৮তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ৫দিন ব্যাপি বইমেলার আয়োজন করেছে বিদ্যানিকেতন হাই স্কুল। বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) স্কুলের মিলনায়তনের ফিতা কেটে ওই উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কবি, লেখক, নাট্যকার ও সাংবাদিক আনিসুল হক।

কৈশোর তারুণ্যে বই ও বিদ্যানিকেতন স্কুলের যৌথ এই আয়োজনে সঞ্চালনা করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম ও সভাপতিত্ব করেন বিদ্যানিকেতন পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ূন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, ‘এখন’ টেলিভিশনের প্রধান ও কৈশোর তারুণ্যে বই’র পরিচালক তুষার আব্দুল্লাহ, ফরিদ আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. ফজলুল হক রুমন রেজা, বিদ্যানিকেতন ট্রাস্টের সদস্য ফয়সল আজিজ তুষার, প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার সাহা, শিফট ইনচার্জ সালমা আক্তার, শিক্ষক জান্নাতুল ফেরদৌস প্রমুখ।

দেশের খ্যাতিমান কবি, লেখক, নাট্যকার ও সাংবাদিক আনিসুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু এদেশে জন্মেছিলেন বলেই আজ আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে বসবাস করতে পারছি। ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার পথকে ভিন্নখাতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে। কিন্তু ঘাতকরা শেখ জামাল, শেখ কামাল, শিশু শেখ রাসেলের রক্ত নিয়ে হোলি খেলেছে কিন্তু আমাদের জাতীয় সংগীত, জাতীয় পতাকা ও স্বাধীনতার পরিবর্তন ঘটাতে পারেনি। বর্তমান নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে। এজন্য বই পড়তে হবে। জ্ঞান অর্জনের জন্য বই পড়ার কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বিদ্যানিকেতনে বই উৎসবকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, আমাদের দেশে ইদানীংকালে নতুন প্রজন্ম বই পড়ার প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে যা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয়। তিনি শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকদের বেশি করে বই পড়ার আহবান জানান।

আনিসুল হক বলেন, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানুষদের যদি কাছে পেতে চাও তাহলে বই পড়তে হবে। রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, হুময়ূন আহমেদ, জাফর ইকবার তাঁদেরকে আমাদের পড়ার টেবিলে রাখতে হবে। তাহলেই কেবল বই পড়ার প্রতি আগ্রহ বাড়বে। আমাদের আলোর দিকে সব সময় যেতে হবে, কিন্তু এই আলোটা পাবো বইয়ের মধ্যে। বঙ্গবন্ধু বই পড়তেন। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানুষরা বই পড়ে মানুষ হয়েছেন।

দেশের প্রতিষ্ঠিত ৯টি প্রকাশনী সংস্থা এই বইমেলায় অংশ নিচ্ছে। এদের মধ্যে রয়েছে অনুপম, অনন্যা, জাগৃতি, কাকলী, এ্যাডর্ন, কথা, তাম্রলিপি, ইকরি মিকরি, সময়সহ কয়েকটি প্রকাশনী সংস্থার স্টল। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে। আগামী ১৫ই আগস্ট বিকেল ৩টায় সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম, এ মান্নান এমপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email