শনিবার, মে ২৫, ২০২৪
Led01জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

মঞ্চে উঠেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নানা জল্পনা-কল্পনার পর আসলো সেই ঘড়ি যখন দীর্ঘ ১৫ বছর পর নারায়ণগঞ্জ শহরের মাটিতে পা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) এক জরুরী সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী আসবেন বলে তথ্য দেন সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান। এর পর থেকেই শুরু হয় প্রধানমন্ত্রীকে বরণ করে নেয়ার প্রস্তুতি। ঘোষণা দেওয়া হয় ৪ ডিসেম্বর আসবে তিনি। সাথে থাকবেন সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগের সিনিয়র এক ঝাঁক নেতৃবৃন্দ।

তার আগমনে বৃহৎ জনসভার আয়োজন করা হয় ফতুল্লার ইসদাইরে অবস্থিত একেএম শাসসুজ্জোহা স্টেডিয়ামে। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার জন্য জনসভাস্থল ও প্রধানমন্ত্রীর আসা-যাওয়ার পথে মোট ৩ হাজার পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল । তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা ব্যবস্থার দায়িত্বে থাকা এসএসএফের সঙ্গে সমন্বয় করে পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে। জনসভা চলাকালীন আশেপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ রাখার পরিকল্পনা নেই। তবে প্রয়োজনে কিছু যান চলাচলের ক্ষেত্রে ‘ডাইভারশন’ রাখা হবে বলে।

এরই মদ্ধ্যে বৃহস্পতিবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মী এবং জনতার মাঝে আগম হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তাকে একবার সরাসরি দেখার জন্য উৎসুক জনতার ভীর জমে যায় স্টেডিয়ামের প্রবেশস্থলে। মঞ্চে তার নিদিষ্ট আসন গ্রহনের পর থেকে জণসভায় উপস্থিত জনগণের মাঝে আনন্দ যেন একধাপ বেড়ে গেল। স্টেডিয়ামের চারদিকে কানায় কানায় জনগণের মুখে উচ্চারিত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছার শ্লোগান। আর অল্পকিছুক্ষনের মদ্ধ্যেই জাতীর উদ্দেশ্যে নির্বাচনী শেষ সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন তিনি।

এদিকে সকাল থেকে নৌকা এবং প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা শ্লোগানে মুখরিত ছিলো গোটা নগরী। সকাল থেকেই নগরীতে ভিড় জমাচ্ছেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। দলবদ্ধ হয়ে ‘নৌকা! নৌকা!’ স্লোগানে পায়ে হেটে, ট্রাকে করে নগরীর প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া হয়ে জনসভা মাঠের দিকে যাচ্ছেন তারা। শুধু যে নগরীর পাড়া-মহল্লা থেকে নেতাকর্মীরা জড় হচ্ছেন তাই নয়, রূপগঞ্জ-সোনারগাঁ-আড়াইহাজার-বন্দর থেকেও দলে দলে সমাবেশস্থলে আসছেন অনেকেই। এক উৎসব মূখর পরিবেশে সবার আগ্রহ একটাই যে এবার টিভিতে নয় সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শুনবেন। নেতাকর্মীদের সাথে ছিলেন এ বারের জাতীয় নির্বাচনের নতুন ভোটারও। উচ্ছাস উদ্দীপনা নিয়ে স্লোগানে কন্ঠ মিলিয়ে এ গিয়ে যাচ্ছে জণসভার দিকে। ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনা আসছেন এবার নারায়ণগঞ্জে’, ‘শেখ হাসিনার আগমন, শুভেচ্ছায় স্বাগতম’ স্লোগানে নেতাকর্মীদের মিছিল জনসাধারণেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। স্কুলগামী শিক্ষার্থী, টং‘র দোকানী, বাজার করতে আসা গৃহিণী, ফুটপাতে হাটা পথিক পর্যন্ত কৌতুহল নিয়ে দেখছেন তাদের কুচকাওয়াজ। নেতাকর্মীদের স্লোগানের ছন্দে তারাও হচ্ছেন মোহিত। এক যুগের বেশি সময় পর দলের সভাপতির আগমনে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা। লাখো মানুষের জনসমাগম ঘটানোর কথাও জানান তারা।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী গণমাধ্যমকে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নারায়ণগঞ্জ আসার খবরে আমাদের মধ্যে আনন্দের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। এত কঠিন শিডিউলের মধ্যেও তিনি নারায়ণগঞ্জে আসার মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জবাসীকেও সম্মানিত করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email