শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
Dis_leadজেলাজুড়েফতুল্লা

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গাড়িতে হামলা, আটক ১

ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: এমপি শামীম ওসমানের মাদকের বিরুদ্ধে মাঠে নামার ঘোষণার পর থেকেই, মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরী হয়েছে। প্রশাসনও বেশ নড়েচরে বসেছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। ফতুল্লায় এমনই একটি অভিযান চালাতে গিয়ে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের ৩ কর্মকর্তাসহ ৭জনকে গাড়িসহ অবরোদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে ফতুল্লার মুসলিমনগর এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ২জন আহত হয়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তাদের গাড়িসহ উদ্ধার করে ফতুল্লা থানায় নিয়ে আসেন। আহত অবস্থায় একজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাদা পোষাকে একজন নারীসহ ৬/৭জন লোক মুসলিমনগর এলাকার মৃত. চাঁন মিয়ার ছেলে শাকিলের বাসায় ঝগড়ায় লিপ্ত হয়। তখন শাকিল চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে ঘটনা জানতে চায়। ওইসময় শাকিল বলেন তার মুখে এসিড নিক্ষেপ করেছে। এতে স্থানীয় লোকজন ফুসে উঠে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে একজনকে মারধর করেন। পরে স্থানীয় লোকজন জানতে পারেন তারা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তা।

আটক মাদক ব্যবসায়ী শাকিল জানান, তার বাসায় সাদা পোষাকে নারীসহ কিছু লোকজন গিয়ে মারধর করে মাটিতে ফেলে একটি বোতল থেকে পানির মত কিছু একটা মুখে ছিটিয়ে দেয়। এতে মুখ জ্বালাপোড়া করায় সে চিৎকার করেন। পরে তাকে স্থানীয় চিকিৎসা কেন্দ্রে নেয়া হলে চিকিৎসক বলেছেন তার চোঁখের সাদা পর্দা ফেটে গেছেন। উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন।

এ বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের উপ-পরিদর্শক ফয়েজ আহমেদ জানান, আমরা কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ৭জন মুসলিমনগর সড়ক দিয়ে একটি মাদক বিরোধী অভিযানে যাচ্ছিলাম। এসময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের গাড়ি দেখে একজন ছেলে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। তখন শাকিল নামে একজনকে আটক করা হয় এবং তার কাছ থেকে ৪৪ পিছ ইয়াবা পাওয়া যায়। এসময় তার বাড়িতে আরো মাদক আছে কিনা দেখার জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। ওইসময় শাকিলকে ছাড়িয়ে নিতে তার লোকজন এসে আমাদের উপর হামলা চালায়। এতে আমাদের একজন কর্মচারী আহত হয় এবং শাকিলও আহত হয়। তবে তার মুখে আমরা কেউ কিছুই ছিটিয়ে দেয়নি। এবিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) নূরে আজম জানান, খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের গাড়িসহ ৭জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেখান থেকে আহত অবস্থায় শাকিল নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। মাদক ব্যবসায়ী শাকিল ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদক মামলা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email