শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
Led04জেলাজুড়েফতুল্লা

মাসদাইরে হামলার: প্রধান আসামী চশমা সাব্বিরসহ আটক ৪

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মাসদাইরে বেক এন্ড বিন রেস্টুরেন্টের হামলার ঘটনায় ৪জনকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। তাদের দাবি মামলার এজাহার নামীয় আসামী আটককৃতরা। সোমবার (২১ আগস্ট) ফতুল্লার মাসদাইর এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো, মামলার প্রধান আসামী সাব্বির ওরফে চশমা সাব্বির, নূর হোসেন সুমন (১৯), রিফাত (২৭) ও কাওসার (২২)।

র‌্যাব-১১ সিনি. সহকারী পরিচালক (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) কাজী শাহাবুদ্দিন আহম্মেদ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আসামী সাব্বির ওরফে চশমা সাব্বির ও তার অন্যান্য সহযোগীরা মিলে গত ১৯ আগস্ট মাসদাইর এলাকায় বেক এন্ড বিন রেস্টুরেন্টের ভিতর ৪০/৫০জন দুষ্কৃতিকারীরা দেশীয় অস্ত্র রামদা, হকিস্টিক, লোহার পাত, কাঠের ডাসা ইত্যাদি সহকারে এলাকায় ত্রাসের ও ভীতির সৃষ্টি করে। বিভিন্ন অফিস,দোকানপাট, রেস্টুরেন্ট ভাঙচুরসহ জনমনে আতংক ও লোকজনদের মারধর করে রাস্তায়যানবাহন ভাঙচুর কালে পাশে দিয়ে যাওয়ার সময় রূপগঞ্জ থানার এসআই (নিঃ) আব্দুল্লাহ আল মারুফকে উৎসুক আসামীরা হত্যার উদ্দেশে তাকে রামদা দিয়ে কোপ মেরে বাম হাতের কব্জির উপরে মারাত্মক কাটা রক্তাক্ত ও যখম করে। পরবর্তীতে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে আসামীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। অত.পর পুলিশ বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করলে, র‌্যাব-১১, এজাহার নামীয় প্রধান আসামী সাব্বির ওরফে চশমা সাব্বিরসহ মোট ৪ জনকে মামলা দায়েরের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। সাব্বির ওরফে চশমা সাব্বির এর পিসিপিআর যাচাই করে দেখা যায় ফতুল্লা থানায় তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। আসামীদেরকে ফতুল্লা মডেল থানায় পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, আলোচিত এই হামলার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা (ডিবি) ও র‌্যাবের যৌথ অভিযানে এখন পর্যন্ত ৩৩জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযান এখনো চলমান আছে বলে নিশ্চিত করেছে ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) নূরে আজম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email