শনিবার, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
জেলাজুড়েফতুল্লা

সুজনের উপর হামলা: থানায় অভিযোগ, ‘আবারো হামলার আশঙ্কা’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: গণসংহতি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়কারী তরিকুল সুজনের উপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় গণসংহতি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়কারী জননেতা তরিকুল সুজন, নির্বাহী সমন্বয়কারী অজন দাস, জেলা কমিটির সদস্য আলমগীর হোসেন আলমসহ নেতৃবৃন্দ ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ সময় অভিযোগ দায়ের পূর্বে নেতৃবৃন্দ ফতুল্লা থানা ওসি মুহাম্মদ নুর আযমকে হামলার বিস্তারিত জানান। বিস্তারিত শুনে তিনি হামলাকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পরামর্শ দেন এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন।

অভিযোগ তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে উপ-পরিদর্শক (এসআই) গিয়াস উদ্দিনকে দায়িত্ব দেওয়া এবং গিয়াসউদ্দিন নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে আশ্বস্ত করেন যে, তিনি হামলাকারী খুজে বের করে যথাযথ শাস্তির উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

এ সময় জেলা সমন্বয়কারী তরিকুল সুজন হামলাকারী ও তাদের নির্দেশদাতাদের শনাক্তকরণ ও বিচারের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘আমি আশঙ্কা করি তারা আবারো হামলা চালাতে পারে। গতকাল রাতে তারা আমাকে শারীরিক ভাবে আহত করে পালিয়ে যাবার সময় আবার হামলার হুমকি দিয়েছে। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

থানার কর্তব্যরত ওসি মুহাম্মদ নুর আযম আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছেন যে তারা হামলাকারী এবং তাদের নির্দেশদাতাদের শনাক্ত করে বিচারের আওতায় আনতে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। আমরা আশা করবো প্রশাসন তার কথা রাখবেন। আমরা দৃঢ় চিত্তে বলি, হামলা-মামলা করে আমাদের বাক স্বাধীনতা, গণতান্ত্রিক অধিকার, ভোটাধিকারের আন্দোলন দমিয়ে রাখা যাবে না।

নির্বাহী সমন্বয়কারী জননেতা অঞ্জন দাস হুশিয়ারী জানিয়ে বলেন, কোনো হামলাই আন্দোলনকে থামাতে পারবেনা। আমরা মনে করি, রাজনৈতিক কারণেই আজকে সমন্বয়কারীর উপর এই হামলা হয়েছে। যারা শহরে ভয়ের-ত্রাসের রাজত্ব টিকিয়ে রাখতে চায় তারাই এই হামলার জন্য দায়ী। গণসংহতি আন্দোলনের সকল নেতা-কর্মী এই সকল হামলাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মানুষের প্রতিটি ন্যায্য আন্দোলনের পাশে থাকবে । নারায়ণগঞ্জ শহরকে একটা নিরাপদ-ভয়মুক্ত, নাগরিক বান্ধব শহর গড়ে তোলাই গণসংহতির লক্ষ্য। ফলে কোনো হামলাই নারায়ণগঞ্জবাসীকে দমিয়ে রাখতে পারবেনা। প্রশাসন ৪৮ ঘন্টার মধ্যে এই হামলাকারী ও তাদের নির্দেশদাতাদের শনাক্তকরণ ও বিচারের আওতায় না আনলে নারায়ণগঞ্জবাসী এই হামলার উপযুক্ত জবাব দেবে। ‘

অভিযোগ দায়েরের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি ছাত্রনেতা ফারহানা মুনা, সহ-সভাপতি ছাত্রনেতা মোমেন হাসান প্রান্ত, সাধারণ সম্পাদক সৃজয় সাহা ও অন্যান্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email